মেলা থেকে বই চুরি, অতঃপর… আন্তর্জাতিক ডেস্ক, নতুন খবর |

হাঁটু মুড়ে বসে রয়েছেন মধ্যবয়সি এক ব্যক্তি। তাকে ঘিরে রয়েছে পুলিশ। কেন মেলা থেকে বই চুরি করলেন সেবিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। কিন্তু ওই ব্যক্তি বই চুরির কথা মানতে নারাজ। অপর দিকে পুলিশও নাছোড়বান্দা। শেষ পর্যন্ত পুলিশের কাছে চুরির কথা স্বীকার ও পরবর্তী ঘটনার জন্য আলোচনায় এসেছেন ওই ব্যক্তি। ঘটনাটি ঘটেছে কলকাতার বইমেলায়

কলকাতার দৈনিক আনন্দবাজার জানিয়েছে, দোকানের কর্মীরা ওই ব্যক্তিকে একটি ব্যাগ নিয়ে ঢুকতে দেখেছিলেন। সেই ব্যাগে পাওয়া গিয়েছে কিছু ‘বই’, যার কোনো ক্যাশ মেমো নেই। কিন্তু অভিযুক্তের দাবি, ব্যাগটি আদৌ তার নয়। পরে সিসি ক্যামেরায় দেখা যায়, ওই ব্যাগ নিয়েই অভিযুক্ত দোকানে ঢুকেছিলেন। ধরা পড়তেই কান্নাকাটি শুরু করেন। তার দাবি, বই কেনার সামর্থ্য নেই। তাই বাধ্য হয়েই চুরি করেছেন।

পুলিশকে ওই ব্যক্তি জানালেন, তাঁর আর্থিক অবস্থা ভাল নয়। তাই বই কেনার ক্ষমতা নেই। কিন্তু বই পড়তে খুব ইচ্ছে করে। উত্তর শুনেও সন্দেহ গেল না পুলিশের। সন্দেহের নিরসন ঘটাতে ‘পরীক্ষকের’ ভূমিকায় অবতীর্ণ হলেন এক পুলিশ কর্মকর্তা। বিভিন্ন বাংলা বইয়ের উল্লেখ করে সেগুলির লেখকদের নাম জানতে চাইলেন তিনি। বর্তমানের কয়েক জনের নাম ছাড়া বেশির ভাগ লেখকের নামই ঠিকঠাক বলে দিলেন অভিযুক্ত। তার উত্তর শুনে পুলিশ কর্মকর্তারা তখন নিশ্চিত হন যে, অভিযুক্তের বই পড়ার অভ্যাস রয়েছে। এরপর তাকে ছেড়ে দেয় পুলিশ।

কলকাতা বইমেলার এই ঘঠনাটি আলোচনায় এসেছে। সামাজিক মাধ্যমে পক্ষে বিপক্ষে নানা জনে বিভিন্ন মত তুলে ধরছেন। কারও কারও বক্তব্য, অনেকেই তো বই কিনে শুধু সাজিয়ে রাখেন। কিন্তু পড়েন না। এই ব্যক্তি চুরি করলেও পড়বেন বলে করেছেন। কেউ আবার বললেন, ‘কত বড় বড় চুরি হচ্ছে। তাদের টিকি ছোঁয়ার সাহস নেই। এক জন বই নিয়েছেন বলে এত কথা হচ্ছে কেন?’

নতুন খবর/তুম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *