বাণিজ্য মেলার শেষ দিন আজ , নিজস্ব প্রতিবেদক , নতুন খবর

বানিজ্যমেলার শেষ দিন আজ

দুই ধাপে সময় বাড়ানোর পর ২৫তম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার শেষ দিন আজ। শেষ সময়ে মেলায় যেমন মানুষের ঢল নেমেছে তেমনি স্টলগুলোতেও যেন ‘আখেরি অফার’ দেওয়া হয়েছে। খাবারের দোকান থেকে শুরু করে কাপড়, আসবাবপত্র, ইলেকট্রনিক্স কিংবা কসমেটিক্স সব ধরনের দোকানেই গতকাল মানুষের উপচে পড়া ভিড় দেখা গেছে। মুজিববর্ষের কাউন্টডাউন ও ঢাকা সিটি নির্বাচনের কারণে তিন দিন মেলা বন্ধ থাকায় দুই দফায় ছয় দিন সময় বাড়ানো হয়। সেই হিসাবে আজ বৃহস্পতিবার মেলার শেষ দিন।

এর আগে, গত সোমবার বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি মেলার সমাপনী ঘোষণা করেন। তবে ওই দিন ব্যবসায়ীদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে আরও দুদিন বাড়িয়ে আজ বৃহস্পতিবার পর্যন্ত সময় দেওয়া হয়। এবারের বাণিজ্যমেলা আগারগাঁওয়ে অনুষ্ঠিত হলেও পরের বছর রাজধানীর পূর্বাচলে বাণিজ্যমেলা অনুষ্ঠিত হবে বলে জানান মন্ত্রী।

গত ১ জানুয়ারি মেলার উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মেলায় প্রথমদিকে দর্শনার্থী ও ক্রেতার সমাগম খুব বেশি না থাকলেও ধীরে ধীরে লোকজনের ভিড় বাড়তে থাকে। মেলার স্টলগুলোও আকর্ষণীয় ছাড় ও নানা অফার দিয়ে ক্রেতা ও দর্শনার্থীর নজর কাড়তে থাকে। মেলার মাঝামাঝি ও শেষ দিকে জমজমাট হয়ে ওঠে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা।

শেষ সময়ের ‘আখেরি অফারে’ দুই হাজার ৭৫০ টাকার ব্লেজার এক হাজার টাকায় বিক্রি করছে মা এন্টারপ্রাইজ নামের একটি প্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠানটির বিক্রয়কর্মী মেহেদি হাসান জানান, মেলা শুরুর দিকে যে ব্লেজার ২৭৫০ টাকায় বিক্রি করেছি তা এখন এক হাজার টাকায় বিক্রি করছি। বনফুল নামের প্রতিষ্ঠানটি একটি লেক্সাস বিস্কুটের প্যাকেট কিনলে একটি ফ্রি দিচ্ছে।

এদিকে মেলার কারণে মাসজুড়ে ওই এলাকায় যানবহনে মানুষের চাপ বাড়ে। যানজটে ভোগান্তি পোহাতে হয় সাধারণ মানুষকে। সব ভোগান্তি উপেক্ষা করে শেষ মুহূর্তেও মেলায় জনসমুদ্র দেখা যায়। বিক্রেতারাও যেন দম নেওয়ার সময় পাচ্ছেন না। শেষ সময়ে আকর্ষণীয় ছাড় দিচ্ছেন ব্যবসায়ীরা। ক্রেতারাও হুমড়ি খেয়ে পড়েছেন স্টল ও প্যাভিলিয়নগুলোতে। মেলা উপলক্ষে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থাও জোরদার করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। প্রস্তুত রাখা হয় দমকল বাহিনী, অ্যাম্বুলেন্স।

এ বছর মেলায় মোট ৪৯০টি দেশি-বিদেশি প্রতিষ্ঠান অংশ নেয়। সাজানো হয় ছোট-বড়-মাঝারি প্যাভিলিয়ন। এ ছাড়া, মেলা প্রাঙ্গণে বঙ্গবন্ধু কর্নার, রক্তদান কেন্দ্র, মা ও শিশু পরিচর্যা কেন্দ্র এবং প্রাথমিক চিকিৎসা কেন্দ্র স্থাপন করা হয়।

নতুন খবর/ আমিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *