নাশকতা যুদ্ধাপরাধ পরমাণু স্থাপনায়: জাতিসংঘকে ইরান :আন্তর্জাতিক ডেস্ক |

 

নাতাঞ্জ পরমাণু স্থাপনায় যে অন্তর্ঘাতমূলক হামলা চালানো হয়েছে তা যুদ্ধাপরাধের শামিল বলে জাতিসংঘকে জানিয়েছে ইরান। এর কারণ হিসেবে তিনি বলেছেন, এই হামলায় আন্তর্জাতিক পরমাণু শক্তি সংস্থা বা আইএইএ এর তত্ত্বাবধানে থাকা একটি স্থাপনাকে টার্গেট করা হয়েছে।

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেসকে লেখা এক চিঠিতে এ মন্তব্য করেন। খবর পার্সটুডের

জারিফ কয়েকটি টুইটার বার্তায় ওই চিঠির মূল বিষয়বস্তু প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, আইএইএ এর তত্ত্বাবধানে থাকা পরমাণু স্থাপনাটিতে হামলার ফলে সেখান থেকে পারমাণবিক নিঃসরণ ছড়িয়ে পড়তে পারত যা পরমাণু সন্ত্রাসবাদ ও যুদ্ধাপরাধের শামিল।

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমেরিকা যদি এই অর্থহীন জুয়া খেলার ক্ষতিকর প্রভাব ঠেকাতে চায় তাহলে তাকে অবিলম্বে তেহরানের ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে পরমাণু সমঝোতায় ফিরে আসতে হবে।

গুতেরেসকে লেখা চিঠিতে জারিফ আরো বলেন, আমেরিকা কার্যকরভাবে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করলে ইরানও তার প্রতিশ্রুতিতে ফিরে যাবে। তা না হলে নাতাঞ্জে যে হামলা হয়েছে তার জের ধরে ইরান তার পরমাণু কর্মসূচির গতি বহুগুণে বাড়িয়ে দেবে।

রবিবার সকালে ইরানের নাতাঞ্জ পরমাণু স্থাপনার বিদ্যুৎ সরবরাহ ব্যবস্থায় গোলযোগ দেখা দেয়। ইরানের আণবিক শক্তি সংস্থার প্রধান আলী আকবর সালেহি এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেছেন, তার দেশের ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ ব্যবস্থায় যে হামলা হয়েছে তা থেকে বোঝা যায় পরমাণু শিল্পে ইরানের চোখধাঁধানো সাফল্য অনেকে সহ্য করতে পারছে না।

নতুন খবর//তুম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *