তাহসান ভক্তের অবাক করা কাণ্ড , বিনোদন প্রতিবেদক, নতুন খবর

বাংলাদেশের জনপ্রিয় তারকা তাহসান খান। শুধু দেশ নয়, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে রয়েছে তার গান-অভিনয়ের অগণিত ভক্ত। সেইসব ভক্তরা বিভিন্ন কাণ্ড ঘটিয়ে প্রিয় তারকাকে চমকে দেয় অনেক সময়। এবার তাহসানের সঙ্গে এমন এক কাণ্ড করলেন এক জার্মান ভক্ত! জার্মান নাগরিকের নাম রাকিব সানকে। তার পিতা ঢাকার হলেও রাকিব জন্মেছেন জার্মানে। বাংলাদেশি বংশোদ্ভ‚ত জার্মানের ওই ভক্ত তাহসানকে নিয়ে গত এক বছরে এঁকেছেন ৭২০০ ছবি!

রাকিব সানকে জানান, ২০০৪ সাল থেকে তাহসানের গান তিনি শোনেন। তার বাবা বাংলাদেশ থেকে তাহসানের গানের সিডি নিয়ে যেতেন তার জন্য। ভক্তের ভাষ্য, সে বছরই তাহসান ভাইয়ের ‘কথোপকথন’ অ্যালবামটি প্রকাশিত হয়। বাবার নেওয়া সিডির মধ্যে এই অ্যালবামও ছিল। প্রথম শোনার পরই গানগুলো খুব ভালো লাগে। মনে হয় এমন গানই আমি খুঁজছিলাম। তখন থেকেই তাহসান ভাইয়ের ভক্ত হয়ে যাই। তিনি বলেন, তার নতুন কোনো গান প্রকাশিত হলে সঙ্গে সঙ্গে সংগ্রহ করে সারা দিন শুনি।

প্রথম প্রথম বাংলা বুঝতে অসুবিধা হলেও বাবা বুঝিয়ে দিতেন। গান শুনতে শুনতেই তাহসান ভাইকে ভালোবাসতে শুরু করি। স্বপ্ন দেখতে থাকি কখনো তাকে কাছ থেকে দেখার। রাকিব সানকে আরও জানান, তাহসানের ফেসবুক গ্রুপ, পেজেও যুক্ত হন। একসময় তার ছবি আঁকা শুরু করেন। সেই ছবিগুলো যারাই দেখেছেন, পছন্দ করেছেন। বললেন, গত এক বছরে তাহসান ভাইয়ের সাত হাজার ২০০টি ছবি এঁকেছি। ‘অভিমান আমার’ অ্যালবামের পোস্টার এঁকে ফেসবুকে পোস্ট করার পর তাহসান ভাই কারো মাধ্যমে দেখতে পান। এরপর নিজের ফেসবুক পেজেও শেয়ার করেন, যা থেকে আরো উৎসাহ পাই।

ছবি আঁকার বিষয়টি নিয়ে তিনি বলেন, একটি ছবি আঁকতে আমার ১০ থেকে ২০ মিনিট লাগে। এমনও দিন গেছে, ৫০টি ছবি এঁকেছি। এসব ছবি সংগ্রহের পাশাপাশি ফেসবুকেও শেয়ার করি। তাহসান ভাইয়ের কয়েকজন ভক্তও আমার কাছ থেকে তার ছবি নিয়েছেন। দু-একজন প্রশ্ন তুলেছিলেন ছবিগুলো আমার আঁকা, নাকি গ্রাফিকসে কাজ করা! তখন ছবি আঁকার ভিডিও দিলে তারা বিশ্বাস করেন, অবাক হন! ভক্তের এমন মধুর পাগলামি নজরে এসেছে তাহসানের।

তিনি বলেন, অনেক বছর ধরে ভক্তদের ভালোবাসা পেয়ে আসছি। তবে নতুন অনুভ‚তি খুব কমই পাই। অনেককে বলতে শুনি, আমি আপনার বড় ফ্যান। অনেকে গিফট দেন। এগুলো খুব ভালো লাগে। কিন্তু যখন আলাদা করে এমন কিছু দেখি, হকচকিয়ে যাই। মনে হয়, এত ভালোবাসা আমার প্রাপ্য না।

একটা মানুষ ভক্ত হতেই পারে; কিন্তু এতটা ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ, সময় দেওয়া, এটা আসলে অভাবনীয়। রাকিব সানকের জন্য আমার শ্রদ্ধা যে, তার ভালোবাসাটা আমার জন্য এত। সৃষ্টিকর্তার কাছেও কৃতজ্ঞ, এত মানুষের ভালোবাসা তিনি আমাকে দিয়েছেন। আগামী ১২ বা ১৪ ফেব্রুয়ারি কোনো একটি কনসার্টে তাহসান রাকিব সানকে আমন্ত্রণ জানানোর ইচ্ছে পোষণ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *