ইসরায়েলি সেনাদের গুলিতে প্রাণ গেল ফিলিস্তিনি তরুণের, আন্তর্জাতিক ডেস্ক , নতুন খবর

মধ্যপ্রাচ্যে শান্তি প্রতিষ্ঠায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কথিত ‘ডিল অব দ্য সেঞ্চুরি’ বা শতাব্দীর সেরা চুক্তিকে এরই মধ্যে প্রত্যাখ্যান করেছে ফিলিস্তিন। যার ধারাবাহিকতায় যুক্তরাষ্ট্রের ঘোষিত এই সমঝোতার বিরুদ্ধে অধিকৃত পশ্চিম তীরে আন্দোলন শুরু করেছেন নির্যাতিতরা।

চলমান বিক্ষোভে ইসরায়েলি সেনাদের গুলিতে ১৭ বছর বয়সী এক ফিলিস্তিনির প্রাণহানি ঘটেছে। এতে গুলিবিদ্ধ হয়েছেন আরও কিছু লোক।

প্রত্যক্ষদর্শী ও চিকিৎসা কর্মকর্তাদের বরাতে কাতার ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরা জানায়, বুধবার (৫ ফেব্রুয়ারি) ইসরায়েলি সেনাদের আগ্রাসনে প্রাণ হারানো ফিলিস্তিনি তরুণের নাম মোহাম্মদ আল-হাদাদ।

মার্কিন প্রেসিডেন্টের সদ্য ঘোষিত শান্তি পরিকল্পনা প্রকাশের পর ছড়িয়ে পড়া অস্থিরতার মধ্যে এবারই প্রথম কোনো ফিলিস্তিনির প্রাণহানি ঘটল।

ইসরায়েলি সেনাদের দাবি, ফিলিস্তিনি সন্ত্রাসীদের ছোড়া ককটেলের জবাবে তারা পাল্টা গুলি ছুড়েছে। তবে এতে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।
বিশ্লেষকদের মতে, ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডে চলমান বিক্ষোভে এমন সময় ইসরায়েলি সেনারা হামলাটি চালাল যখন ‘শতাব্দীর সেরা চুক্তি’ নামে মধ্যপ্রাচ্য শান্তি পরিকল্পনাকে অনেকটাই এগিয়ে নিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। এর মাধ্যমে ফিলিস্তিনের ভূখণ্ডে অবৈধভাবে ইহুদিবাদী ইসরায়েল নামক একটি কৃত্রিম রাষ্ট্র গঠন করা হয়েছে।

গত ২৮ জানুয়ারি ‘ডিল অব দ্য সেঞ্চুরি’ বা শতাব্দীর সেরা চুক্তি নামে মধ্যপ্রাচ্য শান্তি পরিকল্পনা ঘোষণা করেছিলেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সেখানে ফিলিস্তিনের ঐতিহাসিক জেরুজালেম শহরকে ইসরায়েলি ভূখণ্ড হিসেবে উল্লেখ করা হয়। তাছাড়া কেন্দ্রীয় শহর জেরুজালেমের বাইরের আবু দিস নামে ছোট একটি গ্রামকে ভবিষ্যৎ ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের রাজধানী হিসেবে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল।

উল্লেখ্য, ট্রাম্পের সেই পরিকল্পনায় জর্ডান নদীর পশ্চিম তীরের অংশবিশেষ ও গাজা উপত্যকা নিয়ে নামমাত্র একটি ফিলিস্তিন রাষ্ট্র গঠনের কথা বলা হয়েছে। যে রাষ্ট্রের নিজস্ব কোনো সামরিক বাহিনী থাকবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *