আজও উপচেপড়া ভিড় সৌদির টিকিট পেতে: নিজস্ব প্রতিবেদক, নতুন খবর |

করোনাভাইরাসের মধ্যে দেশে এসে এসে আটকেপড়া সৌদি প্রবাসীরা আজও বিমানের টিকিটের জন্য ভিড় করেছেন। গত চার দিনের মতো আজ সোমবারও ভোর থেকে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে সৌদি এয়ারলাইন্স কার্যালয়ের সামনে জড়ো হয়েছেন হাজারও প্রবাসী।

আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর ভিসার মেয়াদ শেষ। রাষ্ট্রীয় সিদ্ধান্তে ভিসার মেয়াদ বাড়ালেও সময় মতো না ফিরলে চাকরি থাকবে না। এই আশঙ্কায় দ্রুত কর্মক্ষেত্রে ফিরতে সৌদি অ্যারাবিয়ান এয়ারলাইন্সের টিকিটের দাবিতে আজও রাজধানীর কারওরান বাজারের সড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করছেন সৌদি আরব প্রবাসীরা।

সৌদি অ্যারাবিয়ান এয়ারলাইন্সের কর্তৃপক্ষের শিডিউল অনুযায়ী, আজ যাদের টোকেন নম্বর ১৯০০ থেকে ২৩০০ শুধুমাত্র তারাই টিকিট পাবেন। তবে ৩ হাজারের পরের সিরিয়ালের টোকেন নম্বর যাদের, তারাও সকাল থেকে ভিড় করেছেন।

সকাল ৭টা থেকে প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলের সামনে অবস্থান নেন সৌদি প্রবাসীরা। অবস্থানকারীদের অধিকাংশেরই ভিসার মেয়াদ শেষ হবে ৩০ সেপ্টেম্বর।

হাতিরঝিল থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, প্রবাসীদের অনেকেই রাতে আশপাশের আবাসিক হোটেলে অবস্থান নিয়েছিলেন। সকাল থেকে তারা এয়ারলাইন্সের কার্যালয়ের বাইরে অবস্থান শুরু করেন। তবে তারা সড়কের পাশে ও ফুটপাতে রয়েছেন। সড়কে যানচলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।

একজন প্রবাসী জানান, তার টোকেন নম্বর ৩ হাজারের পরে। অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে তাকে কাজে যোগ দেয়ার জন্য ডাকা হয়েছে। তবে ভিসার মেয়াদ শেষ হওয়ার আশঙ্কায় গত চার দিন ধরে তিনি টিকিটের জন্য অপেক্ষা করছেন।

করোনাভাইরাস মহামারির কারণে বিমান যোগাযোগ দীর্ঘদিন বন্ধ ছিল। এই সময়ে ছুটিতে দেশে এসে আটকা পড়েন প্রায় দুই লাখ প্রবাসী কর্মী। তাদের মধ্যে প্রায় ৮০ হাজার সৌদিপ্রবাসী ফিরতি টিকিট নিয়ে দেশে এসেছেন। কিন্তু করোনায় আটকে যান। তিন দফায় সাত মাস তাদের ভিসা ও আকামার মেয়াদ বাড়ায় সৌদি সরকার। আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর আকামার মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা থাকলেও সেই মেয়াদ ২৪ দিন বাড়িয়েছে সৌদি। ভিসা ও কাজে ফেরার সময়সীমা (এক্সিট রি-অ্যান্ট্রি) বাড়াতে সম্মত হয়েছে রিয়াদ।

প্রবাসীদের ফেরাতে ইতোমধ্যে নানা উদ্যোগ নিয়েছে সাউদিয়া ও বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স। ফ্লাইট সংখ্যা বাড়িয়েছে উভয় এয়ারলাইন্সই। এছাড়াও বিমান প্রবাসীদের ফেরাতে সৌদির ৩ শহরে মোট ১২টি বিশেষ ফ্লাইট ঘোষণা করেছে।

নতুন খবর/তুম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *