অক্সফোর্ডের টিকা নিরাপদ: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে: আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

 

অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা আবিষ্কৃত করোনাভাইরাসের টিকা প্রয়োগ স্থগিত না করার আহবান জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। নতুন করে ইউরোপের কয়েকটিসহ বেশকিছু দেশ অক্সফোর্ড অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা দেয়া স্থগিত করার সিদ্ধান্তের পর সংস্থাটির পক্ষ থেকে এমন আহ্বান জানানো হলো।

সংস্থাটি বলছে, এ টিকার সঙ্গে ব্লাড ক্লট বা রক্ত জমাট বাঁধার কোনো প্রমাণ তারা পায়নি। জার্মানি, ফ্রান্স, ইতালি ও স্পেনও তাদের পূর্ব সতর্কতার অংশ হিসেবে এ টিকা প্রয়োগ স্থগিত রাখার কথা জানিয়েছে। এমন প্রেক্ষাপটে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার টিকা বিশেষজ্ঞরা আবার আজ বৈঠকে বসতে পারেন। খবর বিবিসির।

বিষয়টি নিয়ে আলোচনার জন্য আলাদাভাবে বৈঠকে বসবে ইউরোপিয়ান মেডিসিন এজেন্সি (ইএমএ) এবং এ বিষয়ে বৃহস্পতিবারের মধ্যে একটি সিদ্ধান্ত নেবে বলে আশা করা হচ্ছে।

তবে তারা বলেছে যে টিকা দেয়া অব্যাহত রাখা উচিত। ইউরোপে টিকা দেয়ার পর রক্ত জমাট বাঁধার কয়েকটি ঘটনা ঘটেছে। যদিও বিশেষজ্ঞরা বলছেন ওই কয়েকটি ঘটনার বাইরে সাধারণ মানুষের মধ্যে এ ধরনের রক্ত জমাট বাঁধার ঘটনার আর কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও যুক্তরাজ্যের প্রায় এক কোটি ৭০ লাখ মানুষ ইতোমধ্যেই অক্সফোর্ড অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা গ্রহণ করেছে। অ্যাস্ট্রাজেনেকা বলেছে, এর মধ্যে রক্ত জমাট বাঁধার ঘটনা চল্লিশটিরও কম।

জার্মানির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সোমবার জানিয়েছে দেশটির টিকা কর্তৃপক্ষের পরামর্শ অনুযায়ী তারা তাৎক্ষণিকভাবে অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা দেয়া বন্ধ করতে যাচ্ছে। দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এ সিদ্ধান্তের কারণ হলো সেরেব্রাল ভেইন থ্রমবোসিস-এর কয়েকটি খবর যার সঙ্গে অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার যোগসূত্র আছে। নতুন ঘটনাগুলোর প্রেক্ষাপটে পল এরলিখ ইন্সটিটিউট (জার্মানি ভ্যাকসিন কর্তৃপক্ষ) পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে টিকাদান স্থগিত রাখার সুপারিশ করেছে’।

তিনি বলেন, এ সিদ্ধান্ত রাজনৈতিক নয়। আমরা সবাই এ সিদ্ধান্তের পরিণতি সম্পর্কে সচেতন এবং আমরা খুব সহজেই এ সিদ্ধান্ত নেইনি।

এরপরই ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাকরোঁ নতুন সিদ্ধান্ত না আসা পর্যন্ত টিকাদান স্থগিত ঘোষণা করেন। অন্যদিকে ইতালি মেডিসিন এজেন্সি অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার কয়েকটি ব্যাচের ওপর নিষেধাজ্ঞা বাড়িয়েছে। আর স্পেনের স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেছেন তার দেশে টিকাদান অন্তত দু’সপ্তাহের জন্য বন্ধ রাখবে।

এর আগে নেদারল্যান্ডও ২৯ মার্চ পর্যন্ত এ টিকা দেয়া স্থগিত করেছে। অস্ট্রিয়াসহ কয়েকটি ইউরোপীয় দেশ পূর্বসতর্কতার অংশ হিসেবে অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার নির্দিষ্ট ব্যাচের টিকা দেয়া স্থগিত করেছে। তবে থাইল্যান্ড মঙ্গলবার থেকে এ টিকা দেয়া আবার শুরুর ঘোষণা দিয়েছে।

অন্যদিকে কানাডার প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা আশ্বস্ত করেছেন যে অ্যাস্ট্রাজেনেকাসহ যেসব টিকা সেখানে দেয়া হচ্ছে তার সবই নিরাপদ। সংস্থাটির মুখপাত্র ক্রিস্টিয়ান লিন্ডমেয়ার বলেছেন, খবরগুলো তারা তদন্ত করেছেন। সুপারিশ শিগগিরই জানানো হবে।

তিনি বলেন, ‘তবে আজ পর্যন্ত এসব ঘটনার সঙ্গে টিকার কোনো সম্পর্ক পাওয়া যায়নি এবং ভাইরাস থেকে গুরুতর রোগ থেকে রক্ষা ও জীবন বাঁচানোর জন্য টিকা দেয়া অব্যাহত রাখা গুরুত্বপূর্ণ।’

যুক্তরাজ্যের মেডিসিন নিয়ন্ত্রক সংস্থা জনগণকে টিকা নেয়া অব্যাহত রাখতে অনুরোধ করেছে।

নতুন খবর//তুম

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.