বড় হামলার পরিকল্পনা ছিল বার্সেলোনার জঙ্গিদের Reviewed by Momizat on . আন্তর্জাতিক ডেস্ক : স্পেনের বার্সেলোনা শহরে ভ্যান উঠিয়ে দিয়ে ১৩ জনকে হত্যাকারী জঙ্গি সেলটির কোনো জনাকির্ণ স্থানে একটি অথবা বেশ কয়েকটি বড় ধরনের বোমা হামলার পরিকল আন্তর্জাতিক ডেস্ক : স্পেনের বার্সেলোনা শহরে ভ্যান উঠিয়ে দিয়ে ১৩ জনকে হত্যাকারী জঙ্গি সেলটির কোনো জনাকির্ণ স্থানে একটি অথবা বেশ কয়েকটি বড় ধরনের বোমা হামলার পরিকল Rating:
You Are Here: Home » আন্তর্জাতিক » বড় হামলার পরিকল্পনা ছিল বার্সেলোনার জঙ্গিদের

বড় হামলার পরিকল্পনা ছিল বার্সেলোনার জঙ্গিদের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : স্পেনের বার্সেলোনা শহরে ভ্যান উঠিয়ে দিয়ে ১৩ জনকে হত্যাকারী জঙ্গি সেলটির কোনো জনাকির্ণ স্থানে একটি অথবা বেশ কয়েকটি বড় ধরনের বোমা হামলার পরিকল্পনা ছিল বলে জানা গেছে।

মঙ্গলবার আদালতে দেওয়া স্বীকারোক্তিতে এক সন্দেহভাজন এ কথা বলেছেন বলে বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানিয়েছে তদন্ত সংশ্লিষ্ট কয়েকটি সূত্র।

এসব হামলা গির্জায় অথবা স্মৃতিস্তম্ভ প্রাঙ্গণে চালানোর পরিকল্পনা করা হয়েছিল বলে জানিয়েছে সে।

তদন্ত সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, একজন ইমাম ওই সেলটির সদস্যদের (যাদের অধিকাংশই মরক্কোর তরুণ) জিহাদের বিষয়ে শিক্ষা দিত।

সন্দেহভাজন মোহামেদ হউলি চেমলাল স্পেনের উচ্চ আদালতকে জানিয়েছেন, ওই ইমাম তাদের বলতেন, “কোরান অনুযায়ী শহীদ হওয়া একটি ভাল বিষয়।”

ওই চক্রান্তের বিষয়ে সারাদিন ধরে শুনানির পর মঙ্গলবার রাতে বিচারক ফার্নান্দো আন্দ্রেয়ু চেমলাল ও দ্বিতীয় আরেক সন্দেহভাজন দ্রিস আউকবিরকে সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর সদস্যপদ ও খুনের অভিযোগে রিমান্ডে নেয়ার আদেশ দিয়েছেন। চেমলালের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক রাখার অভিযোগও আনা হয়েছে।

তৃতীয় সন্দেহভাজন সালহ এল কবিরকে তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত পুলিশ হেফাজতেই রাখার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। সে স্পেনের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের এক শহরে একটি ইন্টারনেট ক্যাফে চালাতো। এই শহরটিতেই সেলটির অধিকাংশ সন্দেহভাজন সদস্য বসবাস করতো।

মোহামেদ আলা নামের চতুর্থজনকে নির্দিষ্ট কিছু শর্ত সাপেক্ষে মুক্তি দেওয়া হয়েছে বলে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

সন্দেহভাজন চারজনের মধ্যে একমাত্র চেমলালই চক্রান্তে নিজের ভূমিকা থাকার কথা স্বীকার করেছেন বলে জানিয়েছেন তদন্ত সংশ্লিষ্টরা। অন্য তিনজন ওই চক্রান্তে তাদের কোনো ভূমিকা নেই বলে দাবি করেছেন।

গত বৃহস্পতিবার বার্সেলোনার লা রামব্লা প্রমিনিতে লোকজনের ওপর একটি চলন্ত ভ্যান উঠিয়ে ৩৪টি দেশের নাগরিক ১৩ জনকে হত্যা ও ১২০ জনকে আহত করেছিল সন্ত্রাসীরা।

ওই ভ্যানটির চালক হিসেবে ইউনেস আবুইয়াকুব নামের ২২ বছর বয়সী একজনকে শনাক্ত করেছিল পুলিশ। সোমবার আবুইয়াকুবকে গুলি করে হত্যা করেছে তারা।

ভ্যান হামলার কয়েক ঘন্টা পর বার্সেলোনার দক্ষিণে উপকূলীয় রিসোর্ট শহর ক্যামব্রিলসে আরেকটি প্রাণঘাতী হামলার ঘটনা ঘটে। এখানে পথচারীদের গাড়ি দিয়ে ধাক্কা দেওয়ার পর গাড়ির আরোহীরা নেমে লোকজনকে ছুরিকাঘাত করার চেষ্টা করে।

পুলিশ নকল বিস্ফোরক বেল্ট পরিহিত পাঁচ হামলাকারীকে ঘটনাস্থলেই গুলি করে হত্যা করে। এখানে সন্ত্রাসীদের হামলায় এক স্পেনীয় নারী নিহত হন।

দুটি হামলারই দায় স্বীকার করে ইসলামিক স্টেট (আইএস) ।

পুলিশ জানিয়েছে, হামলার একদিন আগে ওই জঙ্গি সেলটি নেতৃত্বদানকারী সন্দেহভাজন ইমাম আব্দেলবাকি এস সাত্তি ওই সেলটি যে বাড়িতে বসে বোমা বানাতো সেখানে বিস্ফোরণে নিহত হন।

 

নতুনখবর/সোআ

Leave a Comment