ঢাকাআজ শুক্রবার ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং ৭ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ২রা মুহাররম, ১৪৩৯ হিজরীরাত ১১:১৩

102 বার পড়া হয়েছে «

প্রধান বিচারপতির সরে যাওয়া উচিত ছিল: প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সংসদ সদস্যদের সম্পর্কে অপমানজনক কথা বলা তো আদালতের কাজ না। প্রধান বিচারপতি সংসদের সংরক্ষিত নারী আসন নিয়েও কথা বলেছেন।

সংসদ সদস্যদের সঙ্গে এসব সংরক্ষিত নারী এমপিরাও ভোট দিয়ে রাষ্ট্রপতি নির্বাচন করেন। আর নির্বাচিত রাষ্ট্রপতি নিয়োগ দেন প্রধান বিচারপতিকে। তাই সংরক্ষিত নারী আসন নিয়ে কথা বলার আগে প্রধান বিচারপতির তো উচিত ছিল পদ থেকে সরে যাওয়া। বলতে পারতেন, যেহেতু সংরক্ষিত নারী এমপি ভোট দিয়ে রাষ্ট্রপতি নিয়োগ দিয়েছেন তাই আমি এই পদে থাকবো না।

একুশে আগস্ট ভয়াল গ্রেনেড হামলার ১৩তম বার্ষিকী উপলক্ষে সোমবার রাজধানীতে এক আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে প্রধান বিচারপতির মন্তব্যের সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, সব কিছু সহ্য করা যায়, কিন্তু পাকিস্তানের সঙ্গে তুলনা সহ্য করা যায় না। আমাকে হুমকি দিয়ে কোন লাভ নেই। আমি একমাত্র আল্লাহর কাছে সেজদা দেই, আর অন্য কারো কাছে মাথানত করি না। সবাই মনে রাখবেন, জনগণের আদালতই সবচেয়ে বড় আদালত, জনগণের শক্তিই বড় শক্তি। পাকিস্তানের সঙ্গে বাংলাদেশকে তুলনা করায় জনতার আদালতে তার বিচার চেয়ে বঙ্গবন্ধু কন্যা বলেন, কেন বাংলাদেশকে পাকিস্তান এবং পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তুলনা করা হবে? যে পাকিস্তানকে আমরা যুদ্ধ করে পরাজিত করেছি, লাখো শহীদের মহান আত্মত্যাগে পেয়েছি স্বাধীনতা। যে পাকিস্তান এখন ব্যর্থ রাষ্ট্র- সেই দেশটিকে নিয়ে তুলনা করায় এর বিচারের ভার দেশের জনগণের ওপর দিলাম।

প্রধানমন্ত্রী হুঁশিয়ারী উচ্চারণ করে বলেন, কেউ অবৈধভাবে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা দখলের অপচেষ্টা চালালে তার বিচার করা হবে। তিনি দ্ব্যর্থহীন কণ্ঠে বলেন, বাংলাদেশে আর অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করতে দেয়া হবে না। যদি কেউ সে অপচেষ্টা চালায় তাকে সংবিধানের ৭ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী বিচারের সম্মুখীন হতে হবে। তিনি বলেন, স্বাধীনতা ভাল কিন্তু তা বালকের জন্য নয়। বালক সুলভ আচরণ ভাল নয়। রাজাকার-আদবদর কিংবা শান্তি কমিটির সদস্যরা ক্ষমতা আসলে দেশের কোন উন্নয়ন হয় না। একমাত্র মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি ক্ষমতায় থাকলে দেশের উন্নয়ন হয় আমরা তা প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছি।

আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আয়োজিত এই আলোচনা সভায় আলোচনা সভায় দলের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, দলের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম, জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি এবং বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেমন, জাসদ সভাপতি ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক শিল্পমন্ত্রী দিলীপ বড়ুয়া, তরিকত ফেডারেশনের চেয়ারম্যান নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী, জাসদের কার্যকরী সভাপতি মইন উদ্দীন খান বাদল, কথা সাহিত্যিক ও কালের কণ্ঠের সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলন, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আফম বাহাউদ্দিন নাছিম প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। আলোচনা সভায় অধিকাংশ বক্তাই প্রধান বিচারপতির কড়া সমালোচনা করে বক্তব্য রাখেন। আলোচনা সভা শেষে অনুষ্ঠানস্থলে উপস্থিত ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতদের পরিবার ও আহত নেতাকর্মীদের সঙ্গে কথা বলেন এবং তাঁদের সার্বিক খোঁজ-খবর নেন। অনুষ্ঠানের শুরুতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, ১৫ আগস্টের অন্যান্য শহীদ, চার জাতীয় নেতা এবং ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

নতুনখবর/সোআ

Comments

comments

পাঠকের কিছু জনপ্রিয় খবর

নিউইয়র্ক যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী


বিস্তারিত

২৪ ঘণ্টার মধ্যে সব সড়ক চলাচল উপযোগী করার নির্দেশ ওবায়দুল কাদেরের


বিস্তারিত

ঢাকা আসছেন মার্কিন সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী এলিস ওয়েলস


বিস্তারিত

গাইবান্ধায় প্রধানমন্ত্রী……


বিস্তারিত

শেষ হচ্ছে না হজযাত্রীদের অনিশ্চয়তা


বিস্তারিত

যানজট নিরসনে ঢাকার জন্য ‘চলন্ত রাস্তা’


বিস্তারিত

মিগ-৩৫ যুদ্ধবিমান কিনতে চায় বাংলাদেশ: তাস


বিস্তারিত

সৌদি আরবে ৪ বাংলাদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু


বিস্তারিত

বানভাসি মানুষের কষ্ট লাঘবে সরকার কাজ করছে : প্রধানমন্ত্রী


বিস্তারিত

চাঁদ দেখা কমিটি বৈঠকে বসছে আজ


বিস্তারিত

পাকিস্তানের ইস্যু গণমাধ্যমে ভুলভাবে এসেছে: অ্যাটর্নি জেনারেল


বিস্তারিত

প্রধান বিচারপতির সরে যাওয়া উচিত ছিল: প্রধানমন্ত্রী


বিস্তারিত

গ্রেনেড হামলা: ২০১৭-তে খুলবে বিচারের জট


বিস্তারিত

বিভীষিকাময় ২১ আগস্ট আজ


বিস্তারিত

মোহাম্মদপুরে যুবলীগ কার্যালয় ভাঙচুর, বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি লুট


বিস্তারিত

সুন্দরবনে জেলেদের মনে দস্যু আতঙ্ক মুক্তিপনের দাবীতে অপহরণ-১০ জেলে


বিস্তারিত

এখনো ভিসা হয়নি ৫২ হাজার হজ যাত্রীর


বিস্তারিত

পদোন্নতি পেলেন ১১২ সহকারী জজ


বিস্তারিত