নড়াইলে পুলিশকে বেরিকেড দিয়ে ছিনতাই করা আসামি ২৪ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেফতার Reviewed by Momizat on . নড়াইল জেলা প্রতিনিধি : নড়াইলের ইতনা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান নাজমুল হাসান টগরের নেতৃত্বে পুলিশের ওপর হামলা চালিয়ে তবি শেখ (৫০) নামে ডাকাতি মামলার এক আসা নড়াইল জেলা প্রতিনিধি : নড়াইলের ইতনা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান নাজমুল হাসান টগরের নেতৃত্বে পুলিশের ওপর হামলা চালিয়ে তবি শেখ (৫০) নামে ডাকাতি মামলার এক আসা Rating:
You Are Here: Home » জেলার খবর » নড়াইল » নড়াইলে পুলিশকে বেরিকেড দিয়ে ছিনতাই করা আসামি ২৪ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেফতার

নড়াইলে পুলিশকে বেরিকেড দিয়ে ছিনতাই করা আসামি ২৪ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেফতার

নড়াইল জেলা প্রতিনিধি : নড়াইলের ইতনা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান নাজমুল হাসান টগরের নেতৃত্বে পুলিশের ওপর হামলা চালিয়ে তবি শেখ (৫০) নামে ডাকাতি মামলার এক আসামি ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ করা হয়েছে। বিস্তারিত উজ্জ্বল রায়ের রিপোর্টে নড়াইলের ইতনা গ্রামের চৌরাস্তা বাজারে এ ঘটনা ঘটে। তবি শেখকে (৪৮) ২৪ ঘণ্টা পরে কুমারডাঙ্গা এলাকা থেকে পুলিশ আবার গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় চেয়ারম্যান নাজমুল হাসান টগরসহ ১৬ জনের নাম উল্লেখ করে ৭০-৮০ জন অজ্ঞাতনামা ব্যক্তির বিরুদ্ধে পুলিশ থানায় মামলা করেছে। তবে চেয়ারম্যান নাজমুল হাসান টগর পুলিশের ওপর হামলার ঘটনা অস্বীকার করে বলেন, পুলিশের সঙ্গে তার তর্ক হয়েছে মাত্র। পুলিশ জানায়, ইতনা ইউনিয়নের দৌলতপুর গ্রামের সজল সাহার বাড়িতে ডাকাতির ঘটনায় গত ৬ জুলাই থানায় মামলা হয়। এ মামলায় ইতনা গ্রামের বাবর আলীকে পুলিশ গ্রেফতার করে। গ্রেফতার আসামি বাবর আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। সেই মোতাবেক ইতনা গ্রামের তবি শেখকে ওই এলাকা থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এ ডাকাতি মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. মনিরুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘আমিসহ পুলিশের চার সদস্যের একটি দল তবি শেখকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসার সময় ইউপি চেয়ারম্যান নাজমুল হাসান ও সামু সরদারসহ ৭০-৮০ ব্যক্তি ইতনা চৌরাস্তায় বেরিকেড দেয়। তারা আমাদের ওপর হামলা চালিয়ে তবিকে ছিনিয়ে নেয়। পুলিশ অভিযান চালিয়ে ২৪ ঘণ্টা পর ইতনার পাশের গ্রাম কুমারডাঙ্গা থেকে ফের তবি শেখকে গ্রেফতার করে। ওসি মো. জাহাঙ্গীর আলম ঘটনা নিশ্চিত করেছেন। তিনি সাংবাদিকদের জানান, পুলিশের ওপর হামলা ও আসামি ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনায় মামলার আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। এ ব্যাপারে পুলিশ সুপার বলেন, একজন আসামিকে পুলিশের কাছ থেকে ছিনিয়ে নেওয়া একটি নিন্দনীয় ঘটনা। কাজেই এ ব্যাপারে কাউকেই ছাড় দেওয়া হবে না।

 

নতুনখবর/সোআ

Leave a Comment