পঞ্চগড়ে প্রচণ্ড দাবদাহে জনজীবন বিপর্যস্ত Reviewed by Momizat on . পঞ্চগড় প্রতিনিধি : দেশের বিভিন্ন অঞ্চল যখন বৃষ্টি ও বন্যাকবলিত, তখনো প্রচণ্ড গরমে অস্থির পঞ্চগড়ের মানুষ। কয়েক দিন ধরে এখানে তাপমাত্রা ৩৪ থেকে ৩৭ ডিগ্রির মধ্যে ও পঞ্চগড় প্রতিনিধি : দেশের বিভিন্ন অঞ্চল যখন বৃষ্টি ও বন্যাকবলিত, তখনো প্রচণ্ড গরমে অস্থির পঞ্চগড়ের মানুষ। কয়েক দিন ধরে এখানে তাপমাত্রা ৩৪ থেকে ৩৭ ডিগ্রির মধ্যে ও Rating:
You Are Here: Home » জেলার খবর » পঞ্চগড় » পঞ্চগড়ে প্রচণ্ড দাবদাহে জনজীবন বিপর্যস্ত

পঞ্চগড়ে প্রচণ্ড দাবদাহে জনজীবন বিপর্যস্ত

পঞ্চগড় প্রতিনিধি : দেশের বিভিন্ন অঞ্চল যখন বৃষ্টি ও বন্যাকবলিত, তখনো প্রচণ্ড গরমে অস্থির পঞ্চগড়ের মানুষ। কয়েক দিন ধরে এখানে তাপমাত্রা ৩৪ থেকে ৩৭ ডিগ্রির মধ্যে ওঠানামা করছে। এতে জেলার বাসিন্দাদের জীবনেও সৃষ্টি হয়েছে ভোগান্তি।বিদ্যুৎএর বার বার আসা যাওয়া যেন মরার উপর খারা ।  গ্রামাঞ্চল ঘুরে দেখা গেছে, অধিকাংশ পরিবারেই কেউ না কেউ অসুস্থ অনেকেই ভালো ভাবে রজা দিতে পারছেনা গরমে ক্লান্ত পথচারী গাছতলায় ঘুমাচ্ছে। পঞ্চগড় শহরের ব্যস্ততম সড়ক গুলো দিনের বেলা অধিকাংশ সময় জন শুন্য হয়ে পড়ে ।

কৃষি বিভাগ জানায়, গত সাত দিনে জেলায় তাপমাত্রা ৩৪ থেকে ৩৬ দশমিক ৪ ডিগ্রি পর্যন্ত ওঠানামা করেছে।
জেলার তেঁতুলিয়া উপজেলার শালবাহান এলাকার বাম্পার মিয়া বলেন, ‘মোর ৬০ বছরে ইনং গরম দেখুনি।’ ভজনপুর এলাকার কাপর ব্যবসায়ী রবিউল বলেন, ‘এত গরমে বাড়ি থেকে বের হওয়া যায় না।’ জেলা বাসীর জন্য বৃষ্টি যেন সোনার হরিন।

পঞ্চগড়ের সিভিল সার্জন ডা. প্রীতম্বর রায় জানান, ‘অসময়ের এই তাপে হাসপাতালে রোগীর সংখ্যা বেড়েছে। দাবদাহে পানিশূন্যতা, জ্বর, চোখ ওঠা, চামড়া কুঁচকে যাওয়া এবং ডায়রিয়া, পাতলা পায়খানা হতে পারে। বিশেষ করে শিশু ও বৃদ্ধরা বেশি ভুগছে।’ তিনি এ সময় স্বাস্থ্যজনিত বিপর্যয় রোধে প্রচুর পানি পান করাসহ রোদে বের হওয়া যতটা সম্ভব এড়ানোর পরামর্শ দেন।জেলা পরিবেশ পরিষদের সভাপতি ও পঞ্চগড় সরকারি মহিলা কলেজের ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগের প্রধান তৌহিদুল বারী বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে এমনটি হচ্ছে।

নতুনখবর/সোআ

Leave a Comment