মহম্মদপুর উপজেলা ছাত্রদলের কার্যালয় এখন বাসের টিকেট কাউন্টার। Reviewed by Momizat on . মোঃ হাসিবুর রশীদ মহম্মদপুর (মাগুরা) প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশের সামগ্রিক রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট থেকে বিএনপি যেন একটা হারিয়ে যাওয়া আক্ষেপের নাম। গত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচ মোঃ হাসিবুর রশীদ মহম্মদপুর (মাগুরা) প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশের সামগ্রিক রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট থেকে বিএনপি যেন একটা হারিয়ে যাওয়া আক্ষেপের নাম। গত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচ Rating:
You Are Here: Home » জেলার খবর » মাগুরা » মহম্মদপুর উপজেলা ছাত্রদলের কার্যালয় এখন বাসের টিকেট কাউন্টার।

মহম্মদপুর উপজেলা ছাত্রদলের কার্যালয় এখন বাসের টিকেট কাউন্টার।

মোঃ হাসিবুর রশীদ মহম্মদপুর (মাগুরা) প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশের সামগ্রিক রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট থেকে বিএনপি যেন একটা হারিয়ে যাওয়া আক্ষেপের নাম। গত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ না নিয়ে দলটি এখন মূলত অস্তিত্বের সংকটে ভূগছে। কমিটি-পাল্টা কমিটি, অদক্ষ, অযোগ্য নেতৃত্ব সহ বিভিন্ন  বিতর্কে টালমাটাল অবস্থা দলটির। এই সংকট নিরসনে কোনো উদ্যোগ দেখা যাচ্ছে না।
মাগুরা জেলার মহম্মদপুর উপজেলা বিএনপির দশা যেন একটু বেশিই করুণ। উপজেলা সদর থেকে একেবারে তৃলমূল বা ওয়ার্ডে দুটি করে কমিটি। কোনটি মূল আর কোনটি বিদ্রোহী সেটা বোঝার উপায় নেই। এর একটি অংশের নেতৃত্ব দেন বিএনপির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক মন্ত্রি বিশিষ্ট আইনজীবি এ্যাডঃ নিতাই রায় চৌধুরী, অপর অংশের নেতৃত্বে আছেন মাগুরা-২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য বিশিষ্ট ব্যবসায়ী কাজী সালিমুল হক কামাল। নিজেদের অভ্যন্তরীণ দন্দ্বের ধকল সামাল দিয়ে দলটি আর মাঠের রাজনীতির দখল নিতে সক্ষম হচ্ছে না।

এদিকে মহম্মদপুর উপজেলা ছাত্রদলের বর্তমানে কোনো কমিটি নেই। সর্বশেষ কমিটি হয়েছিলো প্রায় একযুগ আগে। সেই কমিটির বেশির ভাগ সদস্যই এখন আর রাজনীতির সাথে যুক্ত নেই। মহম্মদপুর উপজেলা সদরে ছাত্রদলের একটা সাইনবোর্ড সর্বস্ব কার্যালয় আছে যেটি দীর্ঘদিন ধরে ঢাকাগামী একটি বাসের কাউন্টার হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। এই বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা বিএনপির একাংশের আহবায়ক কমিটির প্রথমসারীর সদস্য প্রকৌশলী মনিরুল ইসলাম টিটু বেশ ক্ষোভের সাথেই বলেন, “আমি নিজেই কার্যালয়টি খুলেছিলাম ছাত্রদলের নেতাদের ঐক্য বাড়ানোর জন্য। খোলার পরে দেখি তাদের কোন্দল আরো বাড়ে। পদ পাওয়ার জন্য সবাই দৌড়ায় কিন্তু দলীয় কোন কর্মসুচির ধারে কাছেও যায় না।”এই বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে উপজেলা বিএনপির অপর অংশের নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক মোঃ আক্তারুজ্জামান বলেন, “এই বিষয়ে আমি কিছুই জানিনা।”কেন ছাত্রদলের কমিটি নেই? এমন একটা প্রশ্নের জবাবে টিটু বলেন, “মাগুরা জেলা শাখা ছাত্রদলের কমিটিই ঝুলে আছে, সেজন্য উপজেলা কমিটিও ঝুলে আছে। সব  একবারে বাদুড় ঝোলা অবস্থা।”

উল্লেখ্য, অন্ত:কোন্দলে জর্জরিত মহম্মদপুর উপজেলা বিএনপি শুধু কমিটিতেই আবদ্ধ, কার্যাত কোন কর্মসুচি চোখে পড়ে না। ফলশ্রুতিতে বিএনপির অঙ্গসংগঠনেরও কোনো জোরালো কর্মসূচি বা কমিটি কোনটিরই অস্তিত্ব নেই এখানে।

নতুনখবর/সোআ

About The Author

Number of Entries : 2090

Leave a Comment

© 2011 Powered By Wordpress, Goodnews Theme By Momizat Team

Scroll to top