‘টয়লেট নেই, জানলে বিয়েই করতাম না!’ Reviewed by Momizat on . বিনোদন ডেস্ক : সিনেমার নাম প্রকাশের পরপরেই সাড়া ফেলেছিল অক্ষয় কুমার ও ভূমি পেদনেকরের ‘টয়লেট : এক প্রেম কথা’। এবার ট্রেইলার প্রকাশের সঙ্গে সঙ্গেই আলোচনায় উঠে এল বিনোদন ডেস্ক : সিনেমার নাম প্রকাশের পরপরেই সাড়া ফেলেছিল অক্ষয় কুমার ও ভূমি পেদনেকরের ‘টয়লেট : এক প্রেম কথা’। এবার ট্রেইলার প্রকাশের সঙ্গে সঙ্গেই আলোচনায় উঠে এল Rating:
You Are Here: Home » বিনোদন » ‘টয়লেট নেই, জানলে বিয়েই করতাম না!’

‘টয়লেট নেই, জানলে বিয়েই করতাম না!’

বিনোদন ডেস্ক : সিনেমার নাম প্রকাশের পরপরেই সাড়া ফেলেছিল অক্ষয় কুমার ও ভূমি পেদনেকরের ‘টয়লেট : এক প্রেম কথা’। এবার ট্রেইলার প্রকাশের সঙ্গে সঙ্গেই আলোচনায় উঠে এলো সিনেমাটি।

ভারতের বিশাল জনগোষ্ঠীর ৪৯ শতাংশেরই বাড়িতে টয়লেট নেই। তারা খোলা আকাশের নীচে শৌচকাজ করেন। টয়লেট আছে কেবল ৪৬ শতাংশের বাড়িতে, বাকিরা ব্যবহার করেন পাবলিক টয়লেট। দেশটির গ্রামাঞ্চলের নারীদের অবস্থা আরও খারাপ। পুরুষেরা বাড়ির বাইরে শৌচকাজ করতে পারলেও তাদের যেতে হয় বাড়ি থেকে দূরবর্তী কোনো এক নির্জন স্থানে।

এই অবস্থার উন্নতি ঘটাতেই ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী নির্বাচিত হওয়ার পরপরই ‘ক্লিন ইন্ডিয়া’ অভিযানে নামেন। কিন্তু সরকারি প্রচেষ্টার পরও মানুষের মনে এব্যাপারে সচেতনতা জাগেনি খুব একটা। আর তাই জনগণের মাঝে সচেতনতার প্রসার ঘটাতে তৈরি হয়েছে অক্ষয় কুমারের সিনেমা ‘টয়লেট : এক প্রেম কথা’।

ট্রেইলারে দেখা যায় মাঙ্গলিক যুবক কেশব বিয়ে করতে উদগ্রীব। স্বপ্নের প্রেমিকা জয়াকে পাওয়ার পর তাকে বিয়েও করে সে। কিন্তু বিপত্তিটা বাধে বিয়ের সকালে, যখন জয়া স্বামীর ঘরে টয়লেট না থাকার কারণে দূরে গিয়ে শৌচকাজ করতে গিয়ে অপমানিত বোধ করে। স্বামীকে সে বলে, “টয়লেট নেই জানলে, এই বাড়িতে বিয়েই করতাম না।”

জয়ার এই কথায় আত্মসম্মানে ঘা লাগে কেশবের। সে ঠিক করে নিজের গ্রামে শৌচালয় সম্পর্কে জনসচেতনতা তৈরি করেই ছাড়বে সে। ট্রেইলারের এক পর্যায়ে বন্ধুকে সে মনের দুঃখে বলে, “শাহজাহান ভালোবাসার জন্য তাজমহল তৈরি করেছিল! আর আমি একটা টয়লেটও গড়তে পারলাম না!”

ভারতের স্বাধীনতা দিবসের আগেই, ১১ আগস্ট মুক্তি পাবে সিনেমাটি।

নতুনখবর/সোআ

Leave a Comment