চতুর্থ শ্রেণীর স্কুল ছাত্রের বিরুদ্ধে সুনামগঞ্জে পুলিশ এসল্ট মামলায় আদালতে অভিযোগ পত্র দাখিল! Reviewed by Momizat on . নিজস্ব প্রতিনিধি : ২৪ বছরের যুবক দেখিয়ে ৯ বছর ৫ মাস বয়সী স্কুল ছাত্রের বিরুদ্ধে সুনামগঞ্জে আদালতে পুলিশ এসল্ট মামলার অভিযোগপত্র (চার্জশীট) দাখিল করা হয়েছে।’চার্ নিজস্ব প্রতিনিধি : ২৪ বছরের যুবক দেখিয়ে ৯ বছর ৫ মাস বয়সী স্কুল ছাত্রের বিরুদ্ধে সুনামগঞ্জে আদালতে পুলিশ এসল্ট মামলার অভিযোগপত্র (চার্জশীট) দাখিল করা হয়েছে।’চার্ Rating:
You Are Here: Home » আইন-আদালত » চতুর্থ শ্রেণীর স্কুল ছাত্রের বিরুদ্ধে সুনামগঞ্জে পুলিশ এসল্ট মামলায় আদালতে অভিযোগ পত্র দাখিল!

চতুর্থ শ্রেণীর স্কুল ছাত্রের বিরুদ্ধে সুনামগঞ্জে পুলিশ এসল্ট মামলায় আদালতে অভিযোগ পত্র দাখিল!

নিজস্ব প্রতিনিধি : ২৪ বছরের যুবক দেখিয়ে ৯ বছর ৫ মাস বয়সী স্কুল ছাত্রের বিরুদ্ধে সুনামগঞ্জে আদালতে পুলিশ এসল্ট মামলার অভিযোগপত্র (চার্জশীট) দাখিল করা হয়েছে।’চার্জশীট ভুও ওই স্কু ছাত্রের নাম   দুর্জয় আচার্য্য। সে  জেলার ছাতক পৌর শহরের দক্ষিণ বাগবাড়ির জীবন আচার্য্যরে ছেলে ও ছাতক পৌর শহরের বাগবাড়ি মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র।
আদালত ও বিবাদী পক্ষের আইনজীবির সুত্রে জানা যায়, সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর থানার একটি পুলিশ এসল্ট মামলায় তাকে ১৬ নম্বর আসামী দেখিয়ে আদালতে ২০ মার্চ অভিযোগপত্র করেন  মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জগন্নাথপুর থানার এসআই অভিজিৎ সিংহ।
এদিকে সুনামগঞ্জের অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুর রহমান মজুমদার মঙ্গলবার দূর্জয়কে জামিন দিয়েছেন। একই সাথে অভিযোগপত্র দাখিলকারী জগন্নাথপুর থানার এসআইকে মামলার আগামী ধার্য তারিখে কারণ দর্শানোর নির্দেশ দিয়েছেন।
মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০১৬ সালের ৬ জুলাই শ্রী শ্রী জগন্নাথ দেবের রথযাত্রা উপলক্ষে জগন্নাথপুর পৌর শহরের সনাতন ধর্মালমঈ স্থানীয় দুই পক্ষের লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষ হলে পুলিশসহ বেশ কয়েকজন আহত হন। এঘটনায় জগন্নাথপুর থানার তৎকালীন এসআই অর্নিবান বিশ্বাস বাদী হয়ে থানায় পুলিশ এসল্ট মামলা দায়ের করেন। মামলায় সাতজনের নাম উল্ল্যেখ করে অজ্ঞাতনামা আরো কিছু  লোকজনকে আসামী করা হয়। পরবর্তীতে ওই মামলার এজাহারের  আসামী হিসাবে দুর্জয়ের নাম না থাকলেও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই অভিজিৎ সিংহ। গত ২০ মার্চ ৪র্থ শ্রেণির ছাত্র দুর্জয় আচার্য্যসহ আরো ১১জনের নাম উল্লেখ করে আদালতে চার্জশিট প্রদান করেন। এরপর গত ১৭ মে আদালত থেকে শিশু দুর্জয় আচার্য্যসহ ৫ জনের নামে গ্রেফতারি পরোয়ানাও জারি করা হয়। মামলার দুর্জয় আচার্য্য’র আইনজীবী প্রদীপ কুমার নাগ বলেন,‘ চতুর্থ শ্রেণীর স্কুল ছাত্র দুর্জয় আচার্য্যকে মামলায় জড়িয়ে হয়রানী করা হয়েছে।’ জগন্নাথপুর থানার ওসি হারুনুর রশিদ চৌধুরী বলেন,‘ মামলার ঘটনা ও অভিযোপত্র দাখিল হয়েছে থানায় আমি যোগদানের পূর্বে।

নতুনখবর/সোআ

Leave a Comment