নাটোরে আদর্শ বাড়ি পেল প্রতিবন্ধি শিশু খাদিজাতুন কোবরা আবেগ আপ্লুত হয়ে কোবরা কে বুকে জড়িয়ে ধরলেন এমপি শিমুল Reviewed by Momizat on . নাটোর: জন্ম থেকেই দু’টি হাত নেই। দিনমজুর বাবার দুঃশ্চিন্তার কারন ৬ বছরের শারীরিক প্রতিবন্ধি খাদিজাতুন কোবরা। খাদিজার ভবিষ্যৎ নিয়ে সার্বক্ষনিক দুঃশ্চিন্তায় থাকেন নাটোর: জন্ম থেকেই দু’টি হাত নেই। দিনমজুর বাবার দুঃশ্চিন্তার কারন ৬ বছরের শারীরিক প্রতিবন্ধি খাদিজাতুন কোবরা। খাদিজার ভবিষ্যৎ নিয়ে সার্বক্ষনিক দুঃশ্চিন্তায় থাকেন Rating:
You Are Here: Home » আন্তর্জাতিক » Uncategorize » নাটোরে আদর্শ বাড়ি পেল প্রতিবন্ধি শিশু খাদিজাতুন কোবরা আবেগ আপ্লুত হয়ে কোবরা কে বুকে জড়িয়ে ধরলেন এমপি শিমুল

নাটোরে আদর্শ বাড়ি পেল প্রতিবন্ধি শিশু খাদিজাতুন কোবরা আবেগ আপ্লুত হয়ে কোবরা কে বুকে জড়িয়ে ধরলেন এমপি শিমুল

নাটোর: জন্ম থেকেই দু’টি হাত নেই। দিনমজুর বাবার দুঃশ্চিন্তার কারন ৬ বছরের শারীরিক প্রতিবন্ধি খাদিজাতুন কোবরা। খাদিজার ভবিষ্যৎ নিয়ে সার্বক্ষনিক দুঃশ্চিন্তায় থাকেন তার পরিবার। অবশেষে এবার অবসান হয়েছে  সেই দুঃচিন্তার। স্থানীয় সংসদ সদস্যের সদিচ্ছায় নতুন বাড়ী পেয়েছে শিশু খাদিজাতুন কোবরা।
গতকাল বুধবার দুপুরে নাটোর শহরের কান্দিভিটা এলাকার ওই শারীরিক প্রতিবন্ধি খাদিজাতুন কোবরাকে আদর্শ বাড়ি উপহার দিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম শিমুল। বাড়িটি হস্তান্তরের সময় সাংসদ  আবেগ আপ্লুত হয়ে পড়েন এবং শিশুটিকে বুকে জড়িয়ে ধরে বাবার আদর ও সোহাগ দিয়ে  কোলে তুলে নেন।
বাড়িটি হস্তান্তরের সময় সংসদ সদস্য বলেন, শিশু খাদিজাকে বাড়িটি হস্তান্তর করে তিনি তার জীবনের একটি মহৎ কাজ করতে পেরেছেন। এই বাড়ি ওই শিশুর জন্য ভবিষ্যৎ হয়ে থাকলো। আগামীতে সুযোগ হলেই এমনি আরো বাড়ি করে দিবেন অন্য অসহায়দের। ইতিমধ্যে একজন অছচ্ছল এক মুক্তিযোদ্ধাকে বাড়ি দিয়েছেন। এই বাড়ি হস্তান্তরের সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক দিলীপ কুমার দাস, উপ-দপ্তর সম্পাদক আকরামুল ইসলাম, স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর রোকনুজ্জামান হিরক, ৫ ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সাধারন সম্পাদক হাবিবুর রহমান খান চুন্নু প্রমুখ।
আপ্লুত হয়ে শিশুটির মা মনিরা বেগম বলেন, তিনি কখনও ভাবেননি তার পঙ্গু মেয়ের জন্য কেউ এগিয়ে আসবে। এটা অনেকটায় স্বপ্নের মত। তিনি কৃতজ্ঞতা জানান স্থানীয় সাংসদ শিমুলকে।
প্রতিবন্ধি শিশুটিকে নতুন বাড়ি করে দেওয়ায় প্রতিবেশীরাও খুশী হয়েছেন। প্রতিবেশী আকরাম, ফজের আলী ও রহিমা বেগম জানান, তারাও বিষয়টি বিশ্বাস করতে পারছেননা। সত্যিই মেয়েটিকে নিয়ে কষ্টেই দিন কাটাচ্ছে পরিবারটি। বাড়ি করে দেওয়ায় তাদের দুঃখ কিছুটা কমবে।
সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানাযায়, সরকারের টিআর আদর্শ গৃহ নিমাণ প্রকল্পের আওতায় এই ধরনে বাড়ি তৈরী করে দুঃস্থ ও আসহায় মানুষদের দেওয়া হচ্ছে। ইতিমধ্যে নাটোর সদর ও নলডাঙ্গা উপজেলায় এধরনের ৮ টি বাড়ি নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে। আদর্শ এই গৃহ নির্মাণ প্রকল্পের প্রতিটিতে দু’টি করে ঘর, একটি স্বাস্থ্য সম্মত টয়লেট ও একটি নলকুপ স্থাপন করা হচ্ছে। প্রতিটি বাড়ির জন্য ২ লাখ টাকা করে বরাদ্দ করা হয়েছে।

নতুনখবর/সোআ

Leave a Comment