নড়াইলে স্কুল মাঠ বৃষ্টিতে তলিয়ে যায়ায় প্রধানমন্ত্রী দৃষ্টি আকর্ষনের জন্য ধানের চারা রোপন করে শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদ Reviewed by Momizat on . নড়াইল জেলা প্রতিনিধি :  নড়াইলের“খালিশা খালি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যলয়টির” আঙ্গিনা সামান্য বৃষ্টিতেই তলিয়ে যায়। আর কাদা-পানির মধ্যে চলতে গিয়ে অথবা খেলাধুলা করতে গি নড়াইল জেলা প্রতিনিধি :  নড়াইলের“খালিশা খালি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যলয়টির” আঙ্গিনা সামান্য বৃষ্টিতেই তলিয়ে যায়। আর কাদা-পানির মধ্যে চলতে গিয়ে অথবা খেলাধুলা করতে গি Rating:
You Are Here: Home » জেলার খবর » নড়াইল » নড়াইলে স্কুল মাঠ বৃষ্টিতে তলিয়ে যায়ায় প্রধানমন্ত্রী দৃষ্টি আকর্ষনের জন্য ধানের চারা রোপন করে শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদ

নড়াইলে স্কুল মাঠ বৃষ্টিতে তলিয়ে যায়ায় প্রধানমন্ত্রী দৃষ্টি আকর্ষনের জন্য ধানের চারা রোপন করে শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদ

নড়াইল জেলা প্রতিনিধি :  নড়াইলের“খালিশা খালি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যলয়টির” আঙ্গিনা সামান্য বৃষ্টিতেই তলিয়ে যায়। আর কাদা-পানির মধ্যে চলতে গিয়ে অথবা খেলাধুলা করতে গিয়ে অসুস্থ হচ্ছে শিশু শিক্ষার্থীরা। বিদ্যালয়ের মাঠে মাটি ভরাটের জন্য সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত ভাবে আবেদন করেও কোথায়ও মেলেনি বরাদ্দ। এখন প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ম্যানেজিং কমিটি ও এলাকাবাসী। বিস্তারিত উজ্জ্বল রায়ের রিপোর্টে, বিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বর্তমান সরকারের গত মেয়াদে বিদ্যলয়ে একটি সুসজ্জিত ভবন নির্মন করা হয়েছে। কিন্তু বিদ্যালয়ের পশ্চিম পাশ দিয়ে পাকা সড়ক ও দক্ষিন পাশদিয়ে একটি আধাপাকা রাস্তার কারনে সামান্য বৃষ্টিতেই পানি জমে আঙ্গিনা তলিয়ে যায়। আঙ্গিনায় জমে থাকা বৃষ্টির পানিতে ভিজে কোমলমতি শিশুরা প্রতিনিয়ত অসুস্থ্য হচ্ছে। শিক্ষার্থীরা ঠান্ডা কাশি, জ্বরসহ পানিবাহিত নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। ফলে শিশু শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি দিন দিন কমে যাচ্ছে। অথচ বিদ্যালয়টি উপজেলা প্রশাসনের কার্যালয় থেকে ১কি.মি. মধ্যে অবস্থিত হলেও ৭/৮ বছর ধরে আঙ্গিনায় মাটি ভরাটের কোন উদ্যোগ নিতে দেখা যায়টি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের। এমনটাই অভিযোগ করে জানালেন এলাকাবাসী। প্রতীকি প্রতিবাদ স্বরুপ শিক্ষর্থীদের ধান রোপনে ক্ষার্থীরা জলাবদ্ধ স্কুল মাঠে ধানের চারা রোপন করে প্রতীকি প্রতিবাদ করছে। এ ব্যাপারে বিদ্যালয়ের  শিক্ষার্থী রিমি খানম, হামিদ, সুমাইয়া, আকাশ, রুবেল, জিনিয়া, রর খবর পেয়ে দুপুরে বিদ্যালয় চত্তরে গিয়ে দেখা যায় শিবিউল, আরিফুল ও সিয়াম তালুকদার বলে, “সামান্য বৃষ্টি হলেই আমাদের বিদ্যালয়ের মাঠে পানিতে ভরে যায়। আমরা মাঠে দাড়িয়ে জাতীয় সংগীত গাইতে পারি না এবং খেলা ধুলা করতে পারিনা। বছরের বেশিরভাগ সময়ই এ অবস্থা থাকে। তাই আমরা নিজ উদ্যোগে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টি আকর্ষনের জন্য এ প্রতিবাদের আয়োজন করেছি।”প্রধান শিক্ষক নার্গিস পারভীন বলেন, প্রায় ২০ বছর যাবত এই বিদ্যালয়ে কর্মরত আছি। নানা সমস্যায় জর্জরিত এ বিদ্যালয়টির বর্তমানে বড় সমস্যা হচ্ছে একমাত্র খেলার মাঠটি। সামান্য বৃষ্টিতেই হাটু পনি জমে যায় মাঠে। ফলে এ্যাসেম্বলী করতে হয় ভবনের বারান্দায়। খেলা ধুলা করতে পারেনা শিক্ষার্থীরা। প্রায় পানিতে ভিজে অসুস্থ্য থাকে তারা। ফলে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি দিন দিন কমে যাচ্ছে। বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি প্রভাষক আবু আব্দুল্লাহ বলেন,“ নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য থেকে শুরু করে জেলা পরিষদের প্রশাসক, জেলা প্রশাসক, উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে একাধিকবার আবেদন করেও বিদ্যালয়ের মাঠে মাটি ভরাটের কোন ব্যবস্থা হয়নি। শিক্ষার্থীদের নানা সমস্যার কথা ভেবে নিরুপায় হয়ে আমরাও শিক্ষাবান্ধব প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছি”। এ বিষয়ে উপজেলা শিক্ষা অফিসার লুৎফর রহমান আমাদের নড়াইল জেলা প্রতিনিধি উজ্জ্বল রায়কে জানান,“ধান লাগিয়ে শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদের বিষয়টি আমি শুনেছি। কোমলমতি বাচ্চাদের কথা বিবেচনা করে বিদ্যালয়ের আঙ্গিনায় মাটি ভরাটের বিষয়টি উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানাব।

নতুনখবর/সোআ

Leave a Comment