ডামারে অবৈধ পাগলীমার হাট উচ্ছেদে মন্ত্রনালয়ের আদেশ উপেক্ষিত Reviewed by Momizat on . নীলফামারী প্রতিনিধি : যেমন তেমন করে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি আঁকিয়ে এবং স্থানীয় সংসদ সদস্য আফতাব উদ্দিন সরকারের নাম ব্যবহার করে একটি সাইনবোর্ড ঝুলিয়ে স্বার্থানেশীমহ নীলফামারী প্রতিনিধি : যেমন তেমন করে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি আঁকিয়ে এবং স্থানীয় সংসদ সদস্য আফতাব উদ্দিন সরকারের নাম ব্যবহার করে একটি সাইনবোর্ড ঝুলিয়ে স্বার্থানেশীমহ Rating:
You Are Here: Home » জেলার খবর » নীলফামারী » ডামারে অবৈধ পাগলীমার হাট উচ্ছেদে মন্ত্রনালয়ের আদেশ উপেক্ষিত

ডামারে অবৈধ পাগলীমার হাট উচ্ছেদে মন্ত্রনালয়ের আদেশ উপেক্ষিত

নীলফামারী প্রতিনিধি : যেমন তেমন করে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি আঁকিয়ে এবং স্থানীয় সংসদ সদস্য আফতাব উদ্দিন সরকারের নাম ব্যবহার করে একটি সাইনবোর্ড ঝুলিয়ে স্বার্থানেশীমহল নীলফামারীর ডোমার উপজেলার পাঙ্গামটকপুর ইউনিয়নে অবৈধভাবে পাগলীমার হাট স্থাপন করে ফায়দা লুটছে বলে অভিযোগ উঠেছে।সরেজমিনে গেলে এলাকাবাসী অভিযোগ করে জানায়, বিএনপি হতে আওয়ামী লীগে যোগদান কারী নুরন্নবী মেম্বার তার দলবল নিয়ে তৌহিদুল ইসলাম সালামের জমি অবৈধভাবে দখল করে ওই হাট স্থাপন করে। সেখানে স্থানীয় সংসদ সদস্য কর্তৃক উদ্ধোধনের ফলক স্থাপন করা হলেও সংসদ সদস্য সেটি উদ্ধোধন করেননি। ফায়দা লুটতে ওই ফলকে বঙ্গবন্ধুর আঁকানো ছবিও ব্যবহার করা হয়। হাট হতে প্রতিদিন লাখ টাকা চাঁদা উত্তোলন করা হয়। এই নুরন্নবীর খুঁটির জোড় নিয়েও প্রশ্ন তুলেন এলাকাবাসী। এদিকে অন্যের জমি অবৈধভাবে দখল করে সেখানে এই অবৈধ হাট বাজার স্থাপন করায় ডোমার ও ডিমলা উপজেলার ২৬টি বৈধ হাটবাজারের ইজারাদারগন ওই হাট বন্ধে তারা ডোমার উপজেলা প্রশাসনকে বারবার লিখিত অভিযোগ করলেও সে হাট বন্ধ করা হয়নি। এ ছাড়া জমির মালিক আদালতে মামলা করলে আদালত অবৈধ পাগলীমার হাটবাজার বন্ধের আদেশ দেয়। পাশাপাশি অন্যের ব্যাক্তি মালিকানাধীন জমিতে জোর করে ওই হাটটি স্থাপনে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয়, স্থানীয় সরকার বিভাগের প্রশাসন-২ শাখা’র সিনিয়র সহকারী সচিব মুহাম্মদ ইকবাল হুসাইন স্বাক্ষরিত গত ২৮ জুন/২০১৬ স্বারক নং-৪৬.০৪১.০৩০.০১.০০.০০২.২০১৬-২৩০ নং আদেশে ওই অবৈধ হাটটি উচ্ছেদের জন্য স্থানীয় প্রশাসনকে নির্দেশ দেয়।সুত্র মতে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয়, স্থানীয় সরকার বিভাগের ওই নির্দেশ প্রাপ্তির পর নীলফামারীর স্থানীয় সরকার শাখার ভারপ্রাপ্ত উপ পরিচালক অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এ,জে,এম এরশাদ আহসান হাবিব ওই হাট বন্ধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহনে ২০১৬ সালের ২ আগষ্ট ০৫.৪৭.৭৩০০.০১১.০৫০১৫.১৬-২৯৬ স্মারকপত্রে ডোমার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাবিহা সুলতানাকে নির্দেশ প্রদান করে। এই নির্দেশের আট মাস অতিবাহিত হওয়ার পর ওই হাট উচ্ছেদ বা বন্ধ করা হয়নি।এ ব্যাপারে ডোমার উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা সাবিহা সুলতানার সঙ্গে মোবাইলে কথা বলা হলে তিনি বলেন যাদের জমি দখল করে অবৈধভাবে হাট স্থাপন যারা করেছে তাদের কে জমির মালিক উচ্ছেদ করে না কেন। জমির মলিক যদি অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ না করে তাহলে আমরা কি করবো। ঘটনাটি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয় ও নীলফামারীর স্থানীয় সরকার শাখার ভারপ্রাপ্ত উপ পরিচালক অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এ,জে,এম এরশাদ আহসান হাবিবের প্রেরিত পত্র সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন এমন অনেক পত্র আসে। খুঁজে দেখতে হবে পত্র এসেছে কিনা।
ডোমার উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক খায়রুল আলম বাবুল সাংবাদিকদের বলেন ওই হাটটি বন্ধের জন্য আমরাও বলেছি। সেখানে একটি সুবিধাবাদী মহল বঙ্গবন্ধু ও স্থানীয় সংসদ সদস্যর নাম ব্যবহার করে হাটটি স্থাপন করে ফায়দা লুটছে। তিনি এই হাট জরুরীভাবে উচ্ছেদ সহ বন্ধের দাবি করেন।

নতুনখবর/সোআ

Leave a Comment