নভেম্বরেই বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপন Reviewed by Momizat on . নতুনখবর ডেস্ক : আগামী নভেম্বর মাসেই মহাকাশে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উেক্ষপণ সম্পন্ন করতে চান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল সোমবার মন্ত্রিসভা বৈঠকের শুরুতে বঙ্গ নতুনখবর ডেস্ক : আগামী নভেম্বর মাসেই মহাকাশে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উেক্ষপণ সম্পন্ন করতে চান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল সোমবার মন্ত্রিসভা বৈঠকের শুরুতে বঙ্গ Rating:
You Are Here: Home » জাতীয় » নভেম্বরেই বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপন

নভেম্বরেই বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপন

নতুনখবর ডেস্ক : আগামী নভেম্বর মাসেই মহাকাশে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উেক্ষপণ সম্পন্ন করতে চান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল সোমবার মন্ত্রিসভা বৈঠকের শুরুতে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের রেপ্লিকা আনুষ্ঠানিকভাবে প্রধানমন্ত্রীর কাছে হস্তান্তর করেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছিল, ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উেক্ষপণ করতে চায়। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী গতকাল এটি নভেম্বরের মধ্যে শেষ করার পরামর্শ দিয়েছেন।

দেশের প্রথম কৃত্রিম ভূ-উপগ্রহ ‘বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট’ উেক্ষপণে খরচ হবে ২ হাজার ৯৬৭ কোটি টাকা। যুক্তরাষ্ট্রের স্পেসএক্স ও ফ্যালকন ৯ উেক্ষপণ যান ব্যবহার করে ফ্লোরিডার লঞ্চ প্যাড থেকে এ উপগ্রহ উেক্ষপণ করা হবে। সেখানে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনিই এটি উদ্বোধন করবেন।

ভূমি থেকে উপগ্রহটি নিয়ন্ত্রণের জন্য গাজীপুর জেলার জয়দেবপুর এবং রাঙ্গামাটির বেতবুনিয়ায় বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন্স কোম্পানি লিমিটেডের (বিটিসিএল) নিজস্ব জমিতে দুটি ‘গ্রাউন্ড স্টেশন’ নির্মাণ কাজ চলছে। অন্যান্য কাজও এগিয়ে যাচ্ছে বলে টেলিযোগাযোগ বিভাগ থেকে জানানো হয়েছে।

সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত এ সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সভাপতিত্ব করেন। মন্ত্রিসভার সদস্যবৃন্দ, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ও সংশ্লিষ্ট সচিবেরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

রাজশাহী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ আইন: রাজশাহী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (আরডিএ) আওতাধীন এলাকায় মহাপরিকল্পনা না মেনে ভূমি ব্যবহার করলে সর্বোচ্চ এক বছরের কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা বা উভয় দণ্ডের বিধান রেখে রাজশাহী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ আইন অনুমোদন করেছে মন্ত্রিসভা। বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের এ অনুমোদনের কথা জানান।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, রাজশাহী টাউন ডেভেলপমেন্ট অথরিটি অর্ডিন্যান্সটি ১৯৭৬ সালের। এতে অল্প কিছু পরিবর্তন করা হয়েছে। খসড়া আইনে জলাধারের সংজ্ঞা জলাধার আইন থেকে এনে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, প্রস্তাবিত আইনে বলা হয়েছে যদি কোনো ব্যক্তি মহাপরিকল্পনায় উল্লেখিত বা চিহ্নিত কোনো উদ্দেশ্য ছাড়া অন্য কোনো উদ্দেশ্যে ভূমি ব্যবহার করে তাহলে তা অপরাধ হিসেবে গণ্য হবে। এজন্য সর্বোচ্চ এক বছরের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা বা উভয় দণ্ডের বিধান রাখা হয়েছে।

জলাধার খনন বা ভরাট, পাহাড় বা টিলা কাটা এসব কাজ করলে মালিককে এটা বন্ধ করার জন্য নির্দেশ দিতে পারবে কর্তৃপক্ষ। যদি এটা কেউ লঙ্ঘন করে তবে এক বছরের কারাদণ্ড বা ৫০ হাজার টাকা জরিমানা বা উভয় দণ্ড পেতে হবে। নিচু জমি ভরাট ও পানি প্রবাহে বাধাগ্রস্ত করার ক্ষেত্রেও একই শাস্তির কথা নতুন আইনে আছে।

পল্লী উন্নয়ন বোর্ড আইন চূড়ান্ত অনুমোদন: বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন বোর্ড আইন, ২০১৭ এর খসড়া চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। ১৯৮২ সালের অধ্যাদেশের মাধ্যমে বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন বোর্ড পরিচালিত হচ্ছে। নতুন আইনে কিছু বিষয় হালনাগাদ করা হয়েছে। আগে বিধান ছিল বোর্ড বছরে ছয়বার ও দুই মাসে একবার সভা করবে। এখন প্রতি ৬ মাসে বোর্ডের কমপক্ষে একটি সভা হবে। আগে ৫ জনের কম হলে কোরাম হত না, এখন প্রস্তাবিত আইনে এক-তৃতীয়াংশ সদস্য যদি উপস্থিত থাকে তবে কোরাম হবে।

আয় অধ্যাদেশ হবে আয়কর আইন: আয়কর অধ্যাদেশ ১৯৮৪ এর বিধানাবলী ‘আয়কর আইন, ২০১৭’ হিসেবে পাস করার প্রস্তাবও নীতিগতভাবে অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। ১৯৮৪ থেকে অধ্যাদেশের যত সংশোধন হয়েছে সবগুলোকে একত্রিত করে একটা সমন্বিত আইন করা হয়েছে।

মুজিবনগর দিবসে জাতিকে মন্ত্রিসভার অভিনন্দন: মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ১৭ এপ্রিল মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে মন্ত্রিসভা জাতিকে অভিনন্দন জ্ঞাপন করেছে। ওই সময়ে যারা নেতৃস্থানীয় ছিলেন যেমন- বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, জাতীয় চার নেতাসহ সবাইকে স্মরণ করা হয়।

নতুনখবর/সোআ

Leave a Comment