নিউ ইয়র্কে জাকির খানের খুনের ঘটনায় হতবাক প্রবাসীরা! Reviewed by Momizat on . প্রবাসে বাংলা : নিউ ইয়র্কে বাড়িওয়ালার ছুরিকাঘাতে বাংলাদেশি ভাড়াটিয়া জাকির খানের খুনের ঘটনায় হতবাক হয়েছে প্রবাসী বাংলাদেশিরা। ফেসবুকসহ সামাজিক গণমাধ্যমে চলছে প্র প্রবাসে বাংলা : নিউ ইয়র্কে বাড়িওয়ালার ছুরিকাঘাতে বাংলাদেশি ভাড়াটিয়া জাকির খানের খুনের ঘটনায় হতবাক হয়েছে প্রবাসী বাংলাদেশিরা। ফেসবুকসহ সামাজিক গণমাধ্যমে চলছে প্র Rating:
You Are Here: Home » প্রবাসে বাংলা » নিউ ইয়র্কে জাকির খানের খুনের ঘটনায় হতবাক প্রবাসীরা!

নিউ ইয়র্কে জাকির খানের খুনের ঘটনায় হতবাক প্রবাসীরা!

প্রবাসে বাংলা : নিউ ইয়র্কে বাড়িওয়ালার ছুরিকাঘাতে বাংলাদেশি ভাড়াটিয়া জাকির খানের খুনের ঘটনায় হতবাক হয়েছে প্রবাসী বাংলাদেশিরা। ফেসবুকসহ সামাজিক গণমাধ্যমে চলছে প্রতিবাদ ও নিন্দার ঝড়। খুনি মিশরীয় বাড়িওয়ালার বিচারের দাবিতে সোচ্চার হয়ে উঠেছে প্রবাসীরা। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা বাংলা প্রেস।জাকির খানের আকস্মিক মৃত্যুতে হতবম্ব হয়ে পড়েছে নিউ ইয়র্কসহ গোট যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বাংলাদেশিরা। কমিউনিটির বিভিন্ন সভা সেমিনার আড্ডায় শুধু একই আলোচানা চলছে। আতঙ্কিত হয়েছে নিউ ইয়র্ক প্রবাসী বাংলাদেশিরা। অনেকেই ফেসবুকে তাদের বন্ধুদের ঘরের বাইরে না যাবার মতো পরামর্শও দিচ্ছেন। উল্লেখ্য, গত বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় ব্রঙ্কসের লোগান এভ্যেনুর থ্রোগস নেক সেকশনের নিজ বাড়িতে বাড়িওয়ালার ছুরিকাঘাতে খুন হন জাকির খান (৪৪)। তিনি নিউ ইয়র্ক প্রবাসীদের মাঝে ছিলেন অত্যন্ত পরিচিত মুখ ও আবাসন ব্যবসায়ী। এ ঘটনায় পুলিশ বাড়িওয়ালাকে আটক করেছে।

ব্রঙ্কস পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় ফোনকল পাওয়ার পর তারা ব্রঙ্কসের থ্রোগস নেক সেকশনের বাড়িটিতে যায়। সেখানে জাকির খানের শরীরে বেশ কয়েকটি ছুরিকাঘাতের চিহ্ন তারা দেখতে পায়। দ্রুত তাকে স্থানীয় জ্যাকোবি মেডিকেল সেন্টারে নেওয়া হলে চিকিৎসকরা তার মৃত্যু নিশ্চিত করেন। ৫১ বছর বয়সী মিশরীয় নাগরিক ওই বাড়িওয়ালাকে পুলিশ আটক করছে। বাড়িভাড়া নিয়ে জাকিরের সঙ্গে মালিকের বছর খানেক ধরে বিরোধ চলছিল। ঘটনার দিন বাড়িভাড়া নিয়ে উভয়ের মধ্যে বাক-বিতন্ডা হয়েছিল বলে জানা যায়। জাকিরখানের বাড়িওয়ালাই তাকে ছুরিকাঘাত করেন বলে পুলিশ জানায়।
তিন সন্তানের জনক জাকিরের গ্রামের বাড়ি সিলেট জেলার ফেঞ্চুগঞ্জ থানার পাঠানটিলা গ্রামে। ১৯৯২ সালে তিনি যুক্তরাষ্ট্রে আসেন। জাকির আবাসন ব্যবসায়ী হিসেবে প্রবাসী বাংলাদেশিদের কাছে পরিচিত ছিলেন। এছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডে যুক্ত ছিলেন তিনি। বুধরার জাকিরের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বাংলাদেশিদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে আসে। জ্যাকবি হাসপাতালেও ছুটে যান অনেকেই। ময়নাতদন্তের জন্য জাকিরের মরদেহ পুলিশ হেফাজতে রয়েছে। কোথায় তার লাশ দাফন করা হবে স্বজনরা তা এখনও নিশ্চিত হতে পারেননি । স্থানীয় সময় শুক্রবার জুমার নামাজের পর পার্কচেস্টার জামে মসজিদে জাকির খানের নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। এরপর তার মরদেহ দেশে পাঠানো হবে বলে স্থানীয় এক সূত্রে জানা গেছে।

নতুনখবর/সোআ

About The Author

Number of Entries : 2090

Leave a Comment

© 2011 Powered By Wordpress, Goodnews Theme By Momizat Team

Scroll to top